বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
291 জন দেখেছেন
"স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে করেছেন (10,983 পয়েন্ট)

2 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (10,983 পয়েন্ট)
আমরা যে স্বপ্ন দেখি, তা নিয়ন্ত্রণের কোনো উপায় আছে? যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের মনস্তত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ডেইড্র ব্যারেট বলছেন, সম্পূর্ণ না হলেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে স্বপ্নকে প্রভাবিত করা যায়। ব্যারেটের গবেষণায় মোট ৭৬ জন ছাত্রছাত্রী অংশ নেন। যে কোনো একটি সমস্যা নিয়ে তাঁদের ভাবতে বলা হয়। ঘুমিয়ে পড়ার আগ পর্যন্ত এক সপ্তাহ ধরে তাঁরা নির্দিষ্ট সমস্যাটি নিয়ে ভাবতে থাকেন এবং দুই-তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থীই একপর্যায়ে স্বপ্নে সেই সমস্যার সমাধান পেয়ে যান।ইমেজারি রিহার্সাল থেরাপি (আইআরটি) নামের একটি পদ্ধতি প্রয়োগ করেও স্বপ্ন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব বলে গবেষকেরা দাবি করছেন। মানসিক রোগীদের দুঃস্বপ্ন এড়ানোর জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সান ডিয়েগোতে আইআরটি ব্যবহার করা হয়েছে। এতে রোগীদের দুঃস্বপ্ন দেখার হার পাঁচ সপ্তাহে ৩৩ শতাংশ কমে যায়। কানাডার আলবার্টায় অবস্থিত গ্র্যান্ট ম্যাকইওয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের মনস্তত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক জেন গ্যাকেনবাক বলেন, কিছু ভিডিওগেম ব্যবহার করে হালকা ও সুন্দর স্বপ্নের ওপর প্রভাব বিস্তার করা যায়। পপুলার সায়েন্স।
0 টি পছন্দ
করেছেন (677 পয়েন্ট)

আমরা যখন ঘুমাই তখন আমাদের শরীর ঘুমের যেন ব্যাঘাত না ঘটে তার পূর্ণ চেষ্টা করে। আর তাই ঘুমের সময়ে বাইরের শব্দ, গন্ধ ও অনুভুতির কারণে শরীর জেগে যাওয়ার বদলে তা স্বপ্নের মাধ্যমে অনূভূত হয়। ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশান ফর দ্যা স্টাডি অফ ড্রিমস এর স্বপ্ন বিশারদ লওরি লরেনবার্গের মতে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় বাহ্যিক প্রভাব স্বপ্নের গল্পের বিষয়বস্তুর উপর প্রভাব ফেলে।

এর অর্থ হলো আমাদের স্বপ্নের বিষয়বস্তু কি রকম হবে তা নির্ভর করে অনেক গুলো প্রভাবকের উপরে। বাইরের কোনো প্রভাব ছাড়াই স্বাভাবিক ভাবে আমরা যে স্বপ্ন দেখি তা সারাদিনের চিন্তা ও অনুভূতির ওপর প্রভাব বিস্তার করে। লরেনবার্গের মতে স্বপ্নে বাইরের অতিরিক্ত প্রভাবের ফলে মস্তিস্কে নেতিবাচক সংকেত পৌছাতে পারে।

শব্দ

স্বপ্নে যখন দেখছেন দমকল বাহিনীর এলার্ম বাজছে অথবা কোনো হুইসেল বাজাচ্ছে কেউ, ঠিক তখনি ঘুমটা ভেঙ্গে গেলে বুঝতে পারবেন যে এটা আসলে আপনার ঘড়ির এলার্ম ছিলো। এরকমটা নিশ্চয়ই অনেকবারই হয়েছে তাই না? বাইরের শব্দের প্রভাব ঠিক এভাবেই স্বপ্নের গল্পকে প্রভাবিত করে। লরেনবার্গ বলেন বাইরের শব্দ স্বপ্নের বিষয়বস্তুর ওপর প্রভাব বিস্তার করে। তাই আপনি যদি ভালো স্বপ্ন দেখতে চান তাহলে পছন্দের কোনো গানের অ্যালবাম ছেড়ে ঘুমিয়ে যান।

image

ঘুমানোর অবস্থান

সম্প্রতি হংকং এর একটি গবেষণায় দেখা যায়, উপুড় হয়ে ঘুমালে যৌন বিষয়ক স্বপ্ন অথবা কারো দ্বারা অত্যাচারিত হতে দেখার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

যখন উপুড় হয়ে ঘুমানো হয় তখন যৌনাঙ্গ বিছানার সংস্পর্শে থাকে ও শ্বাস নিতে সমস্যা হয়। এটা ঠিক সেরকম অনুভূতি যেরকমটা হয় শারীরিক মিলনের সময়। ফলে স্বপ্ন প্রভাবিত হয় এবং যৌন বিষয়ক স্বপ্ন দেখার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়।

এছাড়াও আরো একটি মজার ব্যাপার হলো আপনি যে অবস্থানে স্বপ্ন দেখেছেন, সেই একই অবস্থানে থেকেই যদি ঘুম ভেঙ্গে যায়, তাহলে স্বপ্ন মনে করতে পারার একটি সম্ভাবনা থাকে। স্বপ্নের মাঝখানে যদি আপনার বাথরুমে যাওয়ার জন্য ঘুম ভেঙ্গে যায়, তাহলে ফিরে এসে একই অবস্থানে শুয়ে চোখ বন্ধ করে স্বপ্নের বাকি অংশ সম্পূর্ণ করতে পারবেন।

গন্ধ

২০০৮ এর একটি গবেষণায় জার্মান গবেষকরা মহিলাদের স্বপ্ন দেখার সময় সুন্দর গন্ধ (গোলাপ) ও খারাপ গন্ধ (পচা ডিম) ধরেছিলো নাকের কাছে। মহিলারা যখন ঘুম থেকে উঠেছিলো তখন তাদেরকে প্রশ্ন করা হয়েছিলো তাঁরা কেমন স্বপ্ন দেখেছে। দেখা গেলো যারা সুন্দর গন্ধ নিয়েছিলো তাঁরা ভালো স্বপ্ন দেখেছে এবং যারা খারাপ গন্ধ নিয়েছিলো তাঁরা দুঃস্বপ্ন দেখেছে।

লরেনবার্গের মতে ঘুম থেকে উঠেই ফুলের ঘ্রাণ, চকোলেট কিংবা পারফিউমের গন্ধ নিলে মনের উপর ইতিবাচক প্রভাব পড়ে। অর্থাৎ ঘুমের মধ্যে সুন্দর ঘ্রাণ নিলেও একই ভাবে মনে প্রভাব পড়ে। এর বায়োলজিক্যাল ব্যাখ্যা হলো মস্তিস্কের যে অংশটি গন্ধের সংকেত গ্রহণ করে সেই অংশটিই অনুভূতির সংকেতও গ্রহণ করে। আর এই কারণেই গন্ধের প্রভাব মনের উপর পড়ে।

মনের প্রভাব

আপনার সাথে এবং আপনার আশে পাশের মানুষের সাথে যা ঘটছে তা আপনার স্বপ্নের উপর বেশ প্রভাব বিস্তার করে। লরেনবার্গের মতে আপনি যখন মানসিক চাপে ভুগবেন তখন আপনার স্বপ্নের থেকে রঙ চলে গিয়ে সাদা কালো বা ধূসর হয়ে যাওয়ার একটি সম্ভাবনা থাকে।

image

আপনার স্বপ্নের গল্পের আবহাওয়া কেমন হবে তাও মনের অবস্থার উপর নির্ভর করে। দুশ্চিন্তায় থাকলে স্বপ্নে টর্নেডো দেখার সম্ভাবনা থাকে। আবার মন শান্ত থাকলে সুন্দর রৌদ্দ্রজ্জ্বল দিন দেখার সম্ভাবনা বেশি। ঠিক তেমনি মন খারাপ থাকলে স্বপ্নের আবহাওয়ায় সাধাণরত মেঘলা আকাশ বা বৃষ্টি দেখা যায়।

কোন কিছু থেকে বিরত থাকার চেষ্টার প্রভাব

আপনি যদি মুটিয়ে যাওয়ার কারণে পিৎজা, বার্গার এগুলো খাওয়া বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন তাহলে স্বপ্নে আপনি নিজেকে কোনো পিৎজার দোকানে কিংবা বিশাল বড় বার্গার খেতে দেখতে পারেন। যারা অন্তত এক বছর ধূমপান করার পর ধূমপান ছেড়ে দেয় তাঁরা ধূমপান ছাড়ার ৩০ বছর পরও স্বপ্নে নিজেকে ধূমপান করতে দেখতে পারে।

ওষুধ ও ভিটামিন

লরেনবার্গের মতে কিছু কিছু ওষুধ স্বপ্নের উপর ব্যাপক প্রভাব ফেলে। মানসিক চাপের কারণে স্বপ্ন মনে করতে সমস্যা হয়। মানসিক চাপ কমানোর ওষুধ এক্ষেত্রে স্বপ্ন মনে করতে সহায়তা করে। আবার দেখা গেছে ভিটামিন বি-৬ ও বেশ সহজেই স্বপ্ন মনে করিয়ে দিতে ভূমিকা রাখে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
1 উত্তর
1 উত্তর
11 সেপ্টেম্বর 2019 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল

364,405 টি প্রশ্ন

460,143 টি উত্তর

144,295 টি মন্তব্য

191,845 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...