বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
326 জন দেখেছেন
"কম্পিউটার" বিভাগে করেছেন (10,983 পয়েন্ট)

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (10,983 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন
০১। DDR র‍্যাম মানে হচ্ছে Double Data Rate Random Access Memory । ১০০ মেগাহার্টজের একটি DDR র‍্যাম যদি প্রতি সাইকেলে ২টি ডাটা ট্রান্সফার করে তাহলে DDR2 র‍্যাম করবে ৪টি আর DDR3 করবে ৮টি ! ধরা যাক, ১০০ মেগাহার্টজের একটি র‍্যাম DDR হলে তার মেমরি ব্যান্ডউইথ হবে ১৬০০মেগাবাইট/সেকেন্ড, DDR2 হলে তার হবে ৩২০০মেগাবাইট/সেকেন্ড আর DDR3 হবে ৬৪,০০০ মেগাবাইট/সেকেন্ড !
০২। সাধারন ব্যবহারে এই পার্থক্য বোঝা যায় না কারন ৯৯% কম্পিউটার প্রোগ্রামের জন্য এত বিপুল পরিমান মেমরি ব্যান্ডউইথ দরকারই হয় না । ভারি প্রোগ্রাম ও ভিডিও গেমস চালানোর সময় পার্থক্যটা বোঝা যায় ।
০৩। র‍্যামের ক্লক স্পিড যদি বেশি হয় তাহলে সেটি পারফর্ম করবে ভালো । DDR3 র‍্যাম তাই DDR2 র‍্যামের চেয়ে ভাল এক্সপেরিয়েন্স দেয় ।
০৪। DDR3 র‍্যাম অনেক বেশি এনার্জি এফিসিয়েন্ট !
০৫। DDR2 থেকে DDR3 র‍্যামে অনেক কম Latency কাজ করে, এতে করে DDR3 তুলনামূলক তাড়াতাড়ি রেসপন্স করে ।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
06 এপ্রিল 2018 "হার্ডওয়্যার" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Alamine islam (24 পয়েন্ট)
1 উত্তর
09 জুন 2019 "কম্পিউটার" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন ALAMGIR RUMI (50 পয়েন্ট)
0 টি উত্তর
05 ডিসেম্বর 2016 "কম্পিউটার" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল

364,355 টি প্রশ্ন

460,112 টি উত্তর

144,291 টি মন্তব্য

191,810 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...