Posted By

Xiaomi নিবো নাকি রিয়েলমি?

Education 101

Realme 3 Pro বনাম Redmi Note 7 Pro!! অনেকগুলো রিভিউ এবং এক্সপার্ট অপিনিয়ন দেখার পর যা পেয়েছি তা সংক্ষেপে তুলে ধরব এখন। . প্রথমে দেখা যাক রিয়েলমি ৩ প্রো এগিয়ে আছে কোন কোন দিক দিয়ে: ১। বক্সেই ফাস্ট চার্জার + VOOC সাপোর্ট ২। বেটার সেলফি ক্যামেরা ৩। বেটার গেমিং পারফরমেন্স . আর নোট ৭ প্রো এগিয়ে আছে যেসব দিক দিয়ে তা হল : ১। ওভারঅল পারফরমেন্স (বেটার সিপিইউ) ২। বেটার রেয়ার ক্যামেরা ৩। টাইপ সি পোর্ট ৪। ইনফ্রারেড সাপোর্ট ৫। বেটার সফটওয়ার ৬। প্রিমিয়াম বডি . এক কথায় বলতে গেলে দুটো ফোনই মিডরেঞ্জে খুব ভাল কনফিগারেশন অফার করছে এবং কেউ কারো চেয়ে খুব একটা এগিয়ে/পিছিয়ে নেই। একদিক দিয়ে নোট ৭ প্রো এগিয়ে থাকলে আরেকদিক দিয়ে আবার রিয়েলমি এগিয়ে। ওভারঅল দুটো ফোনই মার্কেট কাপানোর ক্ষমতা রাখে। এখন ডিটেইল কমপেরিজনে আসা যাক: . বিল্ড কোয়ালিটি: প্রথমেই আসি বিল্ড কোয়ালিটি ও আউটলুক প্রসঙ্গে। এইদিক দিয়ে নোট ৭ প্রো ক্লিয়ার উইনার। বেশি কথা বলা নিষ্প্রয়োজন। কারন নোট ৭ প্রো এর গরিলা গ্লাস প্রিমিয়াম লুকিং গর্জিয়াস ব্যাকসাইডের কাছে পাত্তাই পাবে না রিয়েলমির প্লাস্টিক বডি। তাই এই সেগমেন্টে রেডমিই উইনার। . পারফরমেন্স: এবার দেখা যাক পারফরমেন্সে কে কেমন? জিপিইউ পাওয়ার বেশি হওয়ার কারনে গেমিং পারফরমেন্সে রিয়েলমি এগিয়ে আছে, তবে অন্যান্য রুটিন টাস্কে নোট ৭ প্রো কিছুটা বেটার পারফর্ম করেছে কারন এর সিপিইউ বেশি শক্তিশালী। তবে একেবারেই আনকোরা নতুন চীপসেট হওয়ায় এর অারো অনেক অপটিমাইজেশন প্রয়োজন। এটা থেকে বেস্ট পারফরমেন্স পেতে আরো বেশ কয়েক মাস অপেক্ষা করতে হবে। ভবিষ্যতে আপডেট এবং অপটিমাইজেশন হওয়ার পর এটা রিয়েলমির তুলনায় আরো অনেক বেটার পারফর্ম করবে এতে কোন সন্দেহ নেই। এমনকি ইতিমধ্যেই ফোর্টনাইট গেমের জন্য এটাকে অপটিমাইজেশনের কাজ শুরু হয়ে গেছে। তবে সিপিইউ এবং জিপিইউ দুইটার ওভারঅল পারফরমেন্স বিবেচনায় আপাতত দুটো ফোনকেই আমি সমানে সমান বলব। . ক্যামেরা: এবার দেখা যাক ক্যামেরায় কে কেমন করে। সেলফি ক্যামেরায় এক বাক্যে বলা যায় রিয়েলমি ক্লিয়ার উইনার। নোট ৭ প্রো এর সেলফি ক্যামেরা আহামরি কিছুই না। তবে রেয়ার ক্যামেরায় নোট ৭ প্রো এগিয়ে থাকবে। যদিও রিয়েলমিও খুব একটা পিছিয়ে নেই। দুটো ফোনেই সনির সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে, তবে রিয়েলমির তুলনায় নোট ৭ প্রো তে ব্যবহার করা সেন্সরটা লেটেস্ট এবং বেটার। রিয়েলমিতে ব্যবহার করা সেন্সরটা ওয়ানপ্লাস 6T তে ব্যবহার করা হয়েছিল, আর রিউমার অনুযায়ী নোট ৭ প্রো তে ব্যবহার করা সেন্সরটা ওয়ানপ্লাসের আপকামিং ফোনটাতে ব্যবহার করা হবে। তাই বুঝাই যাচ্ছে রেয়ার ক্যামেরায় নোট ৭ প্রো এগিয়ে থাকবে রিয়েলমির তুলনায়। ওভারঅল ড্র। . সফটওয়ার: এবার তুলনা করা যাক দুটো ফোনের সফটওয়ার। এইদিক দিয়ে নোট ৭ প্রো কে এগিয়ে রাখব আমি। miui এর বিজ্ঞাপন নিয়ে যত বিতর্কই থাকুক, তারপরও সেটা অপ্পোর colorOS এর তুলনায় অবশ্যই বেটার। আর miui তে আপডেটও পাওয়া যায় অনেক রেগুলার এবং বছরের পর বছর। অন্যদিকে অপ্পো আপডেট দেয়ার বেলায় খুবই কৃপণ এবং ফোন কিছুটা পুরোনো হয়ে গেলেই তারা আপডেট বন্ধ করে দেয়। তাই সফটওয়ারে নোট ৭ প্রো এগিয়ে থাকবে। . ব্যাটারি: ব্যাটারি ব্যাকআপে দুটো ফোনই প্রায় সমান পারফর্ম করলেও রিয়েলমিতে vooc সাপোর্ট আছে, আবার নোট ৭ প্রো তেও কুইক চার্জ ৪ সাপোর্ট করে। তবে নোট ৭ প্রো এর বক্সে ফাস্ট চার্জার না দেয়ার কারনে এই সেক্টরে রিয়েলমি উইনার। যদিও চাইনিজ নোট ৭ প্রো এর সাথে বক্সেই ফাস্ট চার্জার বক্সে দেয়া থাকে, এইটা বিবেচনায় নিলে নোট ৭ প্রো মোটেও পিছিয়ে নেই এই সেক্টরে। . এবার দুটো ফোনের টুকটাক আনুষঙ্গিক কিছু ফিচারের পার্থক্য বলি। নোট ৭ প্রো তে থাকছে ইনফ্রারেড রিমোট যা রিয়েলমি তে নেই। এছাড়াও নোট ৭ প্রো তে থাকছে টাইপ সি পোর্ট, যা বর্তমান যুগের চাহিদার সাথে মানানসই। অন্যদিকে রিয়েলমির মাইক্রো ইউএসবি কয়েক বছর আগেই গ্রহণযোগ্যতা হারিয়েছে। বর্তমানে প্রায় সবগুলো ব্র্যান্ডই টাইপ সি তে নিজেদেরকে উন্নীত করেছে, অপ্পো কেন টাইপ সি দিল না তা সত্যিই আমার বোধগম্য হচ্ছে না। এটা সত্যিই বিশাল একটা পার্থক্য গড়ে দিয়েছে দুটো ফোনের মধ্যে। ফিচারটা ছোট হলেও এর ইমপেক্ট অনেক বিশাল। টাইপ সি ব্যবহার করে একবার যারা অভ্যস্ত হয়েছে তাদের পক্ষে মনে হয় না কখনো আর মাইক্রো ইউএসবি তে ফিরে যাওয়া সম্ভব। সবদিক বিবেচনা করার পর আমি বলব- দুটো ফোনই দারুন, যেটাই কেনেন না কেন ঠকবেন না। তবে ওভারঅল বিবেচনায় নিঃসন্দেহে রেডমি নোট ৭ প্রো অধিকাংশ দিক দিয়েই রিয়েলমি ৩ প্রো এর তুলনায় এগিয়ে আছে। অপ্পোর ফ্যানবয় অথবা শাওমি হেটার না হলে এটা স্বীকার করতে কারো আপত্তি করার কথা নয়।

Topics: Xiaomi vs realme xiaomi realme xiaomi note 7 pro realme 3 pro

Xiaomi নিবো নাকি রিয়েলমি?

Login to comment login

Latest Jobs