Posted By

নাস্তিকদের প্রতি চ্যালেঞ্জ

Education 23

 

ইসলামে স্বাধীনতা বলতে কি বুঝায়,মুক্ত স্বাধীনতা কি?

মানুষকে আল্লাহ পাক ক্ষমতা কেন্দ্রীক স্বাধিনতা দান করেছেন।সে যেটা পারবে বা যতটুকু পারার ক্ষমতা তার আছে আল্লাহ তার যোগ্যতার ভিত্তিতে তাঁকে ততটুকু স্বাধিনতা দিয়েছেন।এখন যার একটা পিপিলিকা, মশা বা একটা গাছের পাতা বানানোর ক্ষমতা নেই ,আর যার ক্ষমতা আছে এই দুয়ের সিদ্ধান্ত ,চিন্তা স্বাধিনতার সীমারেখা কি এক হতে পারে? পাগল বলবে পারে নাস্তিক ও বলবে না।এই জন্য সৃষ্টি আর স্রষ্টা ।স্রষ্টার চিন্তার মুক্ত স্বাধিনতার কোন সীমাবদ্ধতা নেই কারণ সমগ্র ক্ষমতার মালিক একমাত্র আল্লাহ। আল্লাহ তায়ালার জ্ঞানের সীমাবদ্ধতা নেই বলেই তিনি সবকিছুর স্রষ্টা কোনটা সৃষ্টির জন্য ভালো আর কোনটা সৃষ্টির জন্য অকল্যাণ একমাত্র আল্লাহ্‌ই জানেন এবং সেই মোতাবেক তিনি কোরআনের গাইড লাইন দিয়েছেন।সৃষ্টির জন্য কল্যানকর এমন কিছু বিধিবিধান কোরআনের ভিতর আছে যা গোমরাহীর কারণে কিছু কিছু নাস্তিক, মুরতাদ বা তাদের দোসরদের নিকট মুক্ত চিন্তার বিরুদ্ধে যাবে।তাদের চিন্তার দাবীতে তারা এই জন্য সঠিক  নয় যে,তারা কোন কিছু সৃষ্টি করতে পারেনা।মানুষ কিভাবে তৈরি করা হয়েছে সে জ্ঞান যার কাছে আছে সেইতো জানবে কোনটাই মানুষের কল্যান।তোমার যদি এতই বুদ্ধি বা জ্ঞান থাকে তাহলে একজন মানুষ বানিয়ে বলো মুক্ত ছেড়ে দিলাম মুক্ত চিন্তা করো ।আর তা যেহেতু পারবেনা সেহেতু যে স্রষ্টা মানুষ সহ সমস্ত মাখলুকাত তৈরী করেছেন অবনত মস্তকে তার নিকট আত্ম সমর্পন করো।কোন কিছু সৃষ্টির মুরদ যখন নেই তখন আযায়রা মুক্ত চিন্তার নামে ফাইজলামী মুল্যহীন।মুসলিমের জন্য মংগল জনক টুকুই তার মুক্ত চিন্তার সীমারেখা।মুক্ত চিন্তা করতে গিয়ে নাস্তিকরা দুনিয়াতেই অপমানিত লান্চিত হয়ে শিয়াল কুত্তা,জানোয়ারের চাইতেও ঘৃনিত হয়ে দুনিয়া হতে বিদায় নিয়েছ,যাদের নাম সহসা কেউ নিলেও আভিসম্পাৎ করে নেই।

Topics: শিক্ষনীয়

নাস্তিকদের প্রতি চ্যালেঞ্জ

Login to comment login

Latest Jobs