শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সন্ত্রাসবাদ! ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যৎ কোথায়?

Education 3

সন্ত্রাসবাদ বিশ্বে এটা ঘৃণিত সমস্যা। এই সমস্যার কারণে মানুষ স্বতস্ফূর্তভাবে চলাফেরা করতে ভয় পায়। নিজের বাসায়ও দ্বিধাদ্বন্দ্বে থেকে সময় কাটাতে হয় অনেক সময়। বর্তমানে সন্ত্রাসবাদের সমস্যা এতই তীব্র যে এটা রুখতে আধুনিক বিশ্বকে হিমশিম খেতে হচ্ছে। এমন কোথায় নেই যেখানে সন্ত্রাসবাদ নেই! পৃথিবীর আনাচে কানাচে সব জায়গায়ই সন্ত্রাসবাদের সমস্যাটি জড়িয়ে রয়েছে। এমনকি আদর্শ স্থান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাসবাদ খুবই দৃঢ়ভাবে রয়েছে। বিশেষ করে অনুন্নত দেশগুলোতে এর প্রকোপ অনেক বেশি। এর উদাহরণ ঠানলে বাংলাদেশ অনেক উপরে থাকবে। বর্তমানে আমাদের দেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাসবাদ ব্যাপক অনিয়ন্ত্রিত পর্যায়ে চলে গেছে। এটা আমাদের জন্য একটি ভীতিজনক পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলো সবার চোখে ফুলবাগানের মতো। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এখান থেকে উৎপত্তি লাভ করে। কিন্তু এটি পরিতাপের বিষয় যে আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো ব্যাপকভাবে সন্ত্রাসবাদের দ্বারা হুমকির সম্মুখীন হয়েছে।  বর্তমানে আমাদের দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মাকড়শার জালের মতো সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে পড়েছে। এটা আমাদের জন্য কতটা দুঃখজনক ব্যাপার তা আমরা ভালোভাবেই বুঝতে পারি। প্রায় প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে অনিষ্ট ও ভয় অধিকতর শক্তিশালী। সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা অস্ত্রশস্ত্র দেখে খুবই ভীত থাকে। যে কেউ ধারণা করতে পারে যে, ছাত্রছাত্রীরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে  শিখছে কিভাবে অস্ত্রশস্ত্র ব্যবহার করতে হয় এবং প্রতিষ্ঠান গুলো অস্ত্রের কারখানা হচ্ছে। এ সন্ত্রাসবাদ শিক্ষকদের কেও আতংকিত করে। তারা চত্বরে স্বাধীনভাবে চলাফেরা করতে ভয় পায়। এভাবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাসবাদ শান্ত পরিবেশটা নষ্ট করছে। আসলে আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ছোট ছোট সেনা ছাউনী হয়ে গেছে। আবাসিক হলগুলো সন্ত্রাসীদের গোলাবারুদের ভান্ডার হয়েছে। অনেক সময় অসংখ্য রকমের অস্ত্র ব্যবহৃত হয়। সন্ত্রাসীরা এগুলো বিভিন্ন উৎস থেকে পায়। মাঝে মাঝে ছাত্রছাত্রীরাও অস্ত্র তৈরী করে। মুলত যেসব অস্ত্রশস্ত্র শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ব্যবহৃত হয় সেগুলো হলো, পিস্তল, রিভালবার,বন্দুক,কুটার,ক্ষুর ও ককটেল প্রভৃতি। এসব দেখে মনে হয় যে আমাদের ছাত্রছাত্রীরা অস্ত্রের ব্যবহার শিখছে এবং সেগুলো সংরক্ষণ করছে।  আমরা ইতিহাস ঘাটলে জানতে পারি যে, আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে একটি গৌরবময় অতীত ছিল। তারা আমাদের দেশ ওমানুষের জন্য অনেক অবদান রেখেছিল। বর্তমানে আমাদের ছাত্রছাত্রীরা বিপথগামী। তারা সরাসরি ন্যায়ের পথে যেতে পারে না। তার সমাজ বিরোধী ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড জড়িত। ছাত্রছাত্রীরা আমাদের রাজনীতিবিদদের দ্বারা তাদের নোংরা উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে ব্যবহৃত হচ্ছে। তারা শিক্ষাথীদেরকে মারাত্মক অস্ত্র দিচ্ছে। শুধু তাই নয়, নিরাশা, হতাশা, বঞ্চনা প্রভৃতি আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে সন্ত্রাস হওয়ার অন্যতম প্রধান কারণ। আবার নৈতিক রীতিনীতি এবং বিচারের ক্রুটি, রাজনৈতিক অস্থিরতা, যথাযত নির্দেশনার অভাব এবং উদ্দেশ্যহীন জীবন সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে পড়তে বেগবান করে। আমাদের ক্রুটিযুক্ত পাঠ্যক্রম এবং রাজনীতি ও আমাদের চত্বরে সন্ত্রাসবাদ সৃষ্টি করতে সাহায্যে করে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাসবাদ ভয়ানক প্রভাব ফেলে। এটা ব্যাপকভাবে আমাদের প্রতিষ্ঠানের প্রাতিষ্ঠানিক পরিবেশ বাধাগ্রস্থ করছে। অনেক সময় প্রতিষ্ঠান গুলো অনির্দিষ্টকালের কালের জন্য বন্ধ থাকে। পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে পারে না। ফলে বর্ষ জট সৃষ্টি হয়। এটা প্রতিষ্ঠানের উপর ভীষনভাবে চাপ সৃষ্টি করে। অভিভাবকদের কে তাদের সন্তানদের পড়াশোনা করাতে অনেক টাকা খরচ করতে হয়। জাতি মেধাবী সন্তানদের সেবা পেতে ব্যর্থ হয়। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাসবাদ প্রায়ই ছাত্রছাত্রীদের জীবন কেড়ে নেয়। আমরা পত্রপত্রিকায় অনেক খবরে এসব সংবাদ পাই। ছাত্ররা ভালো যায় আর মৃত হয়ে মায়ের কোলে ফিরে আসে। আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ব্যাপক সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে পড়ার কারণে, আমাদের সুনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় গুলো সুনাম ও ছাত্রছাত্রী উভয় হারাচ্ছে। দিনদিন মানুষের আস্তা কমে যাচ্ছে।

★★ সন্ত্রাসবাদ সমাধান করার উপায় : আমাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে লাগামছাড়া সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে পড়েছে। কিন্তু জাতির কল্যানে এটা অবশ্যই বন্ধ করতে হবে। এর জন্য আমাদের নিশ্চিত করতে হবে,

 ১। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত পড়ালেখা ব্যবস্থা করতে হবে। 

 ২। আমাদের ছাত্রছাত্রীদের প্রাতিষ্ঠানিক দায়িত্ব পূরণ করতে হবে। 

 ৩। চত্বর থেকে বহিরাগতদের বিতাড়িত করতে হবে।  

৪। ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে যোগাযোগ ও মতবিনিময় সুনিশ্চিত করতে হবে

  ৫। প্রাতিষ্ঠানিক প্রশাসন অবাধ এবং ন্যায্য হতে হবে।  

৬। রাজনৈতিক দলের ঐক্যতা এবং তাদের সহযোগিতা থেকে ছাত্রছাত্রীদের দুরে থাকতে হবে। 

৭। প্রতিষ্ঠানের জন্য আমাদের পুলিশ বাহিনীর নিরপেক্ষ নিরাপত্তা ও পাহারাদার রাখতে হবে। 

Topics: সন্ত্রাস ছাত্র শিক্ষা রাজনীতি প্রশাসন

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সন্ত্রাসবাদ! ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যৎ কোথায়?

Login to comment login

Latest Jobs