দাপ্তরিক পত্র কি? এর গুরুত্ব কি? কিভাবে লিখবেন?

Education 237

মানুষ সামাজিক জীব। সমাজে বসবাসরত মানুষ জৈবনিক কারণেই মানুষ ও প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগসুত্র রক্ষা করে চলতে হয়। আর এ যোগসুত্রের উল্লেখযোগ্য মাধ্যম হলো চিঠিপত্র। ব্যাক্তিগত কিংবা সামাজিক কারণে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে যেসব পত্রের মাধ্যমে নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় যোগাযোগ আবেদন, দাবি-প্রত্যাশা ব্যক্ত করা হয় বা প্রয়োজন মেটানো হয়, তাকে দাপ্তরিক পত্র বলে। 

★★ দাপ্তরিক পত্রের পরিধি : চাকরি আবেদন, চাকরি স্থল হতে ছুটি আবেদন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে ছুটি বা ভ্রমণের জন্য, বনভোজনর জন্য, শিক্ষাসফরের জন্য আবেদন, সরকারের দায়িত্বপূর্ণ কর্তৃপক্ষের কাছে ব্যক্তি, সমাজ বা এলাকার বিভিন্ন ধরণের সমস্যা নিরসনের জন্য আবেদন ইত্যাদি সবই দাপ্তরিক পত্র। এছাড়া সংবাদ পত্রে প্রকাশের জন্য পত্র, ব্যবসা বানিজ্যের ক্ষেত্রে যোগাযোগ, মালামাল প্রেরণ-গ্রহণ প্রভৃতি পত্র দাপ্তরিক পত্রের অধিভুক্ত। কোন প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে নিমন্ত্রণ পত্র, কোর্ট বা থানা পুলিশ প্রদত্ত চিটিপত্র, চুক্তিপত্র স্মারকলিপি এগুলো দাপ্তরিক পত্র। 

★★ দাপ্তরিক পত্রের কাঠামো : চাকরির আবেদন পত্র ভিন্ন অন্যান্য দাপ্তরিক পত্রাদিতে নিম্নলিখিত অংশগুলো থাকে :

১। পত্র লেখার তারিখ : স্থান : যে তারিখে পত্রটি লেখা হবে সে পত্র লেখার স্থানসহ তারিখ দিতে হবে। 

২। দাপ্তরিক পত্রের ক্ষেত্রে সুত্র নং ব্যবহার করতে হয়। (যেমন : ক,ফ ১১২/০৩)

৩। কোন কোন দাপ্তরিক পত্রের নামে বরাবর/প্রাপক লিখে প্রাপকের পূর্ণ ঠিকানা লিখতে হয়। 

৪। বিষয় : বিষয়ের শিরোনাম লিখতে হবে। 

৫। কোন কোন পত্রে সুধী/মহোদয়/জনাব লিখতে হয়। 

৬। পত্রগর্ভ : এ অংশে পত্রের মুল বিষয়বস্তু লিখতে হবে। 

৭। বিদায় সম্ভাষণ : এক্ষেত্রে বিনীত, নিবেদক,বিনয়াবনত, নির্দেশক ইত্যাদি লিখে পত্র প্রেরকের নাম, ঠিকানা, পদবী ইত্যাদি লিখতে হবে। 

৮। প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে পত্র প্রেরণ করলে নাম সাক্ষরের নিচে প্রতিষ্ঠানের অথবা কর্মকর্তার সিলমোহর দিতে হবে। 

★★ আবেদন পত্রের গঠন :

** শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্র>>

১। বরাবর,

   >অধ্যক্ষ/প্রধান শিক্ষক,

   >প্রতিষ্ঠানের নাম, 

   >ঠিকানা। 

২। বিষয় : (যেমন : বিনা বেতনের অধ্যয়ন করার জন্য আবেদন।) 

৩। সম্ভোধন : জনাব,

৪। মুল বিষয়বস্তু। 

৫। বিদায় সম্ভাষণ : আপনার একান্ত বাধ্যগত বা আপনার অনুগত। 

৬। >নাম

   >শ্রেনী

   >বিভাগ

   >ক্রমিক নম্বর

৭। তারিখ সহ স্থান উল্লেখ করতে হবে। 

৮। খাম : >খামের বামপাশে লিখতে “প্রেরক”। (যিনি পত্রটি পাঠাবেন।)

> ডানপাশে লিখতে হবে “প্রাপক” (যার কাছে পাঠাবেন)

★★ যেকোনো সমস্যা জানিয়ে কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন পত্রের গঠন। 

১। >বরাবর,

   >শিল্প সচিব/সচিব/শিক্ষামন্ত্রী/চেয়ারম্যান।

  > কর্তৃপক্ষের প্রতিষ্ঠান 

  >স্থান

২। বিষয় : (যেমন : নলকূপ স্থাপনের জন্য আবেদন।) 

৩। সম্ভাষণ : জনাব, 

৪। মূল অংশ : বিষয়ের বর্ণনা। 

৫। বিদায় সম্ভাষণ। 

★★ সংবাদপত্রে প্রকাশের পত্রাদির গঠন :

১। মাননীয় সম্পাদক,

২। পত্রিকার নাম 

    > স্থান

৩। সম্ভাষণ :

৪। পত্রিকায় প্রকাশের জন্য অনুরোধ। 

৫। বিনীত,

৬। বিষয়বস্তুর উপর নামকরণ : (যেমন, ডেঙ্গুজ্বর হতে মুক্তি চাই।) 

৭। বিদায়সম্ভাষণ : >নিবেদক,

           > গ্রামবাসী/এলাকাবাসী

৮। তারিখ, স্থানসহ লিখতে হবে। 

Topics: দাপ্তরিক পত্র

দাপ্তরিক পত্র কি? এর গুরুত্ব কি? কিভাবে লিখবেন?

Login to comment login

Latest Jobs