ভালোবাসা

Career 81

........ ১ মিনিট লাগবে গল্পটি মিসকরবেনা........১টি ছেলে বিয়ে করার জন্য মেয়েদেখতে গেল।মেয়েটা তার ভাললাগলো। তারপর সবাই সবার সবকিছু খোজখবর নিলো।তার ১৫ দিন পর ছেলেটার পক্ষ থেকেমানুষ জন গিয়ে মেয়েটার হাতে আংটিপড়িয়ে দেয় আর বিয়ের কথা পাকা করেআসে।তারপরে তাদের মাঝে ফোনালাপচলতে থাকে।তার ৩ দিন পর ফোনের আলাপ আলোচন :-ছেলে:- আচ্ছা তুমি কি আরও পড়তেচাও ???মেয়ে :- হ্যা... কারণ আমার আশা ছিলডাঃ হবো।ছেলে:- ডাঃ হলে তুমি খুশি হবে ???মেয়ে :- হ্যা.. এটাই আমার সবচেয়ে বড়চাওয়া খোদার কাছে। আর চাইলে কি সবপারবো !!!ছেলে:- কেনো ???মেয়ে :- কারণ.. ১। আমার বিয়ে ঠিক হয়েগেছে.. ২। আমার বাবার এত টাকা নাই।ছেলে:- আমার তো আছে। তোমাকেআর কিছু দিতে পারি আর না পারি।তবেতোমার আশাটা আমি পুরন করব !!! তুমি কিপড়তে রাজি ???মেয়ে :- হ্যা. কিন্তু বিয়ের আর মাএ ৯ দিনবাকী..সেটার কি হবে ???ছেলে:- এটা আমার উপর ছেড়ে দাও !!!মেয়ে :- OK.ছেলে তার ফেমিলির সবাইকে বুঝিয়েবলে, আর সবাই রাজি হল। মেয়ের লেখাপড়ার জন্য সব খরচ ছেলেটা দিচ্ছে এবংদেখা শুনা ঠিকমত ছিল কিন্তু কিছু দিন পর ।মেয়ে :- আমার ১টা কথা রাখবে ???ছেলে:- হ্যা. বল আমি কি করতে পারি ???মেয়ে :- কিছু মনে করনা। আমার সাথেআর দেখা করিওনা !!!ছেলে:- কিন্তু কেনো ???মেয়ে :- তোমাকে দেখলে নিজেকেধরে রাখতে পারিনা। ওদিকে আমারপরীক্ষার ২ বছর বাকী। যদি,,ফেল করিসমাজে মুখ দেখাতে পারবো না। আরতোমার টাকা ও কষ্ট বিথা যাবে।ছেলে:- OK. কিন্তু ফোনে কথা বলবানা ???মেয়ে :- হ্যা.ছেলে:- ok.২ বছর পর মেয়েটা পরীক্ষা দিল এবং পাশকরল।সেই খুশিতে মেয়ের বাড়ীতেমেহমান বরপুর।কিন্তু ছেলেটাকে বলল না।কারণ এখন ঐ ছেলেকে স্বামী হিসেবেসবার সামনে পরিচয় করাতে পারবে নাবলে ।তার ১৫ দিন পর মেয়েটা একটিচেম্বার নিয়ে বসে।তখন জানতে পেরেছেলেটা তাকে ফোন করলে,মেয়েটাফোন কেটে দেয় এবং বন্ধ করে দেয়।ছেলেটা তার বাড়ীতে যায় । আর মেয়েতাকে বলল,,,,,,আমাকে ক্ষমা করে দাওএবংমনে কষ্ট নিওনা,, আমি তোমাকে বিয়েকরতে পারবো না !!!ছেলে:- কেন:???মেয়ে :- কারণ তুমি আমার যোগ্য না এবংলেখা পড়াও জানো না ।ছেলে:- আমাদের ফেমিলি থেকে যেসব ঠিক করা ???মেয়ে :- ওটা আগে ছিল,,আমি এখন তামানতে পারবোনা ।ছেলে:- দু চোখ ভরা কান্না নিয়ে বলল ।OK. আমিতোমার জন্য দোয়া করি ভালথেকো,,,বলে চলে আসলো।কিছু দিন পরে ছেলেটা অসুস্থ হয়ে পড়ে ।আর ঐ দিকে মেয়েটা এক হাসপাতালেরবড় ডাঃ হয়।ছেলেটার অবস্থা খারাপদেখে ঐ হাসপাতালে নিয়েযায়।ঐ খানে এক ডাঃ তাকে দেখে চিনেফেলে,,,,আর ওর ফেমিলির সবাইকে বকাজকা করল। কারণ অনেক লেট করেফেলেছে। তখন মেয়েটা ঐ ডাঃ কেবলল আপনি ওদের বকছেন কেন ??? তখনডাঃ বলল এই মানুষটা আজ থেকে প্রায় ৫বছর আগে ওর বউয়ের ডাক্তারী পড়তেটাকা লাগবে বলে ১টি কিডনী বিক্রিকরল। আমি নিষেধ করলে সে বলল আমারবউ ডাঃ হলে আমাকে সে ভালো করেদিবে,,,,,,,তা শুনে মেয়েটার চোখ থেকেজল নেমে এল !!!কি লাভ এখন কান্না করে,,আসলে সবমেয়েরাই স্বার্থপর,,, তাদের স্বার্থেরজন্য তারা সব করতে পারে,,,

Topics:

ভালোবাসা

Login to comment login

Latest Jobs