Posted By

৭ প্রকারের ওয়েব আর্টিকেল

Education 10

ওয়েব আর্টিকেল কি? এবং কিভাবে লিখতে হয় তা নিয়ে বিষদ বিস্তার আলোচনা করেছি। এবার একটু গভীরতম বিষয় নিয়ে আলোচনা করা যাক। ওয়েব আর্টিকেল কত প্রকার। বা  কি কি ধরনের ওয়েব আর্টিকেল হয়। আমি যতটুকু রিসার্চ করে দেখলাম এর কোন সঠিক ক্লাসিফিকেশন কেউ করেন নি। আমি একটু চেস্টা করতেছি নিজের মত করে ক্লাসিফিকেশন করে দেয়ার এবং এটা নিয়ে একটু ব্যাখ্যা করার।

ইনফর্মেটিভ ব্লগ পোস্ট

ধরুন আপনি কোন কিছু নিয়ে বর্ননা মূলক সাজেশন অথবা টিউটোরিয়াল দিচ্ছেন। কোন পন্য কিভাবে ব্যাবহার করবেন। কিভাবে অটোমেটিক মেশিন গান ফায়ার হয়। কি কি করলে আপনি আমেরিকান ভিসা পাবেন। এই ধরনের লেখাগুলোকে বলতে পারেন ইনফর্মেটিভ ব্লগ পোস্ট। মূল কথা এসব লেখায় কোন না কোন লেসন থাকে। এবং লেখাগুলো খুব একটা বড় হয়না।

লং ফর্ম কন্টেন্ট

এটার সাথে উপরেরটা অনেকদিন থেকেই মিল আছে। এটাও কোন একটি বিশেষ বিষয়ের উপর শিক্ষামুলক লেখা। তবে এটা সবসময় সাইজে এক্টূ বড় হয়। যেমন ধরুন, “ কন্টেন্ট লেখার a2z  গাইড” বা “ ওয়েব ডেভেলপিং গাইড” এগুলো সাধারন ধারাবাহিক কোন লেখা হয়। এবং কোন একটা বিষয়ের উপর খুঁটিনাটি থেকে শুরু করে সবকিছুই এসব লেখায় পাবেন।

প্রোডাক্ট রিভিউ

নাম শুনেই বুঝেছেন এখানে কি হয় না হয়। হ্যা এসব আর্টিকেল কোন একটি নির্দিষ্ট প্রোডাক্ট অথবা ঐ একই ধরনের গুটীকয়েক প্রোডাক্ট সম্পর্কে লেখা হয়। এসব আর্টিকেলে প্রোডাক্ট সম্পর্কে ভালো মন্দ সবকিছুই আলোচনা করা হয়ে থাকে। যারা এফিলিয়েট মার্কেটিং নিয়ে কাজ করেন তারা এই লেখাগুলোর সাথে বহুল পরিচিত। আবার অনেকে এসব লেখাকে মানি আর্টীকেল বলে থাকেন। কারন রিভিউ করার পাশাপাশি তারা প্রতিটা প্রোডাক্ট এর এফিলিয়েট লিংক বসিয়ে থাকেন। যেখান থেকে পাঠক প্রোডাক্টটি কিনলে তারা কিছু কমিশন পেয়ে থাকেন।

প্রেস রিলিজ

কোন একটা কোম্পানি বা সংগঠন থেকে সাধারনত এধরনের লেখা আসে। ধরুন আপনার একটি সংগঠন আছে যেখানকার কাঠামো অথবা আগামী পরিকল্পনা আপনি সবাইকে জানাতে চান। এসবকিছু প্রকাশ করা হয় প্রেস রিলিজ আকারে। এর উদ্দেশ্য হলো সংগঠন বা কোম্পানির আপডেট সবাইকে জানিয়ে দেয়া।

ল্যান্ডিং পেজ কন্টেন্ট

এটা সাধারনত কোন প্রোডাক্ট এর উপর হয়ে থাকে। যেখানে আপনি আপনার নিজের প্রোডাক্ট কাস্টোমারের কাছে উপস্থাপন করবেন। এবং কেন কিনবে কিভাবে কিনবে এসব নিয়ে আলোচনা করে থাকেন।

কেস স্টাডি

কোন একটি বিষয়ের উপর বিষয় গবেষণামুলক লেখা হচ্ছে এটি। ধরুন হঠাত করে গুগল সার্চ ইঞ্জিন র‍্যাংক ফ্যাক্টরে আপডেট আসার ফলে অনেকগুলো ওয়েবসাইট তার র‍্যাংক হারালেন। কেন র‍্যাংক ফল করলো কি কি আপডেট এসেছে। কোথায় কোথায় কি কি করলে আবার পূর্বের অবস্থানে ফিরে যাওয়া যাবে। এসব মূলত কেস স্টাডি। এখানে কোন একটি বিষয় কেন ঘটলো, আপনাকে কি কি করতে হবে ইত্যাদি সবকিছু নিয়েই একটা গবেষণামূলক লেখা।

ইনফোগ্রাফিক

কোন একটি বিষয়কে ভালোভাবে উপস্থাপন করার জন্য ইনফো গ্রাফিক একটি ভালো মাধ্যম। যেখানে আপনার লেখাটী থাকবে। এবং সেটার সাথে মিলে রেখেই কিছু গ্রাফিকাল ইমেজ থাকবে যে ইমেজগুলোর মাধ্যমেই আপনার লেখাটি উপস্থাপন করা হবে। এই মুহুর্তে বহুল জনপ্রিয় ইনফোগ্রাফিক।

ইবুক

ইবুক হচ্ছে অনেকটাই বইয়ের মত। তবে কোন কাগজের বই না। ভার্চুয়াল বই। এখানে বইয়ের মত কোন একটা বিষয় ধারাবাহিকভাবেই উপস্থাপন করা হয়। কোন একটি বিষয়ের উপর বিষদভাবে আলোচনা করা হয়। সূচীপত্র আকারে প্রতিটি টপিক আলোচনা করা হয়ে থাকে। এবং অবশ্যই কন্টেন্ট সাইজে অনেক বড় হয়ে থাকে।

স্লাইডশো/ ভিডিও

স্লাইডশো অথবা ভিডিও হচ্ছে ওয়েব আর্টীকেলের আরেকটি ফর্ম। আপনার কথাগুলো উপস্থাপন করার জন্য স্লাইডশো অথবা ভিডিও অনেক ভাইটাল একটা বিষয়। আপনি খুব সহজের আপনার কথাগুলো পাঠকের সামনে উপস্থাপন করতে পারেন।

তো এই ছিলো আমার করা ৭ রকমের ওয়েব আর্টিকেলের ধরন। হয়তো অনেককিছুই মিস করে গেছি,। কারন এটার আসলেই তেমনভাবে কোন ক্লাসিফিকেশন নেই। ধরতে গেলে হয়তো ১০০ প্রকারের ওয়েব আর্টীকেল বের হয়ে আসবে। আজকে নাহয় এটুকুই থাক। ধন্যবাদ

Topics:

৭ প্রকারের ওয়েব আর্টিকেল

Login to comment login

Latest Jobs