পারমাণবিক অস্ত্রঃমানব সভ্যতার জন্য মারাত্মক এক হুমকি

Education 16

 

            হাজার হাজার বছরের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে মানুষ গড়ে তুলেছে তার সভ্যতা।নানা প্রযুক্তির কারণে আমরা পেয়েছি কাজের গতিশীলতা।এই প্রযুক্তিই দূরকে করেছে কাছে আর মানবজীবনকে করেছে সহজ।কিন্তু,পারমাণবিক অস্ত্র এমনই এক প্রযুক্তি যা নিমিষে মানব সভ্যতাকে ধ্বংস করে দিতে পারে।এমন এক ধরনের প্রযুক্তি যা নিউক্লিয়ার বিক্রিয়ার ফলে প্রাপ্ত প্রচণ্ড শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞের সৃষ্টি করে।এর ফলে  খুবই অল্প পরিমাণ পদার্থ থেকে বিশাল পরিমাণে শক্তি নির্গত হয়। যা ধ্বংসযজ্ঞের কাজে ব্যবহার করা হয়।শুধু প্রচলিত বোমার সমান আকারেই একটি পারমাণবিক বোমা দ্বারাই একটি শহরকে ধ্বংস করে দেয়া যায়। পারমাণবিক অস্ত্রকে ধরা হয় ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞের এক বোমা হিসেবে।                                      মূলত,দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ই  পারমাণবিক অস্ত্র এর ব্যবহার শুরু হয় আমেরিকা প্রথম পারমাণবিক বোমা ফেলেছিল জাপানের উপরএটিই মানব ইতিহাসে প্রথম পারমানবিক বোমা ফেলার ঘটনা ছিল।জাপানের হিরোশিমা ও নাগাসাকি শহরে দুইটি পারমাণবিক বোমা ফেলা হয়েছিল।কিন্তু,এর ফলাফল ছিল মারাত্মক।প্রচণ্ড বিস্ফোরন ও ক্ষতিকর আলোক-কণা বিকিরণের কারণে তাৎক্ষণিকভাবে মারা গিয়েছিল প্রায় ১২০,০০০ লোক এবং আয়নাইজিংয়ের ফলে ধীরে ধীরে আরো অসংখ্য মানুষ মারা গিয়েছিল।  এখন পর্যন্ত আরও পাঁচ শতাধিকবার পরীক্ষামূলকভাবে এবং প্রদর্শনের জন্য এ বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। এর থেকে প্রমাণ হয় যে, আমরা এখনও এর ভয়াবহতা অনুধাবন করতে পারি নাই বা প্রতিযোগিতার কারনে আমরা  ধ্বংসের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।                                           বিগত কয়েক বছর থেকে আমরা উত্তর কোরিয়ার  পারমাণবিক অস্ত্র এর পরীক্ষামূলক বিস্ফোরণ এর খবর দেখেছি।যা প্রায় সমগ্র দুনিয়ার জন্যই মারাত্মক হুমকি।আবার,আমাদের এই উপমহাদেশের দুই দেশ ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে পারমাণবিক অস্ত্র প্রতিযোগিতা দেখে আসছি।যা এই উপমহাদেশের স্থায়ী শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য হুমকি।এই পারমাণবিক অস্ত্র এর প্রতিযোগিতা আমাদের মানব সভ্যতা তথা সমগ্র দুনিয়ার জন্যই ক্ষতিকর।বর্তমানে পারমাণবিক বোমার বিস্ফোরন ঘটিয়েছে এবং মজুদ রয়েছে এমন দেশগুলো হল - যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, চীন, ভারত ও পাকিস্তান।তাছাড়া,উত্তর কোরিয়া,ইরান ও ইসরায়েল এর কাছেও পারমাণবিক বোমা আছে বলে মনে করা হয়।এই সকল দেশের কাছে যে পরিমাণ পারমাণবিক অস্ত্রের মজুদ আছে বলে অনুমান করা হয় তা দিয়ে কয়েকবার এই ধরণীকে  ধ্বংস করা সম্ভব।তারপরেও এই সকল দেশ পারমাণবিক অস্ত্রের মজুদ বাড়াচ্ছে।যদি,এই প্রতিযোগিতা এখনই প্রতিরোধ করা না হয়,তাহলে সত্যিই  হয়ত একদিন আমাদের এই প্রিয় বাসভূমি ধ্বংস হয়ে যাবে।

Topics: পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষামূলক বিস্ফোরণ

পারমাণবিক অস্ত্রঃমানব সভ্যতার জন্য মারাত্মক এক হুমকি

Login to comment login

Latest Jobs