অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং নাকি গুগল অ্যাডসেন্স ?

Career 63

হ্যালো, আজকে আমরা অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং এবং গুগল অ্যাডসেন্স নিয়ে কথা বলব। প্রথমেই আমরা জানব অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং কী, কীভাবে কাজ করতে হয়, কত আয় হয়, বর্তমানে আমাদের দেশে এবং বাইরের দেশে অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং-এর চাহিদা কেমন এবং কেন?  

কোনো কোম্পানীর পণ্য বিক্রি করে দেওয়ার মাধ্যমে যে নির্দিষ্ট কমিশন পাওয়া যায় তাই হলো অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং।এখানে কাজ করার বিভিন্ন পদ্ধতি রয়েছে যেমন: ব্লগিং, ইউটিবিং । আর আয়ের বিষয়টা নির্ভর করে আপনার দক্ষতার উপর । আপনি যত বেশি কাজ করবেন তত বেশি আয় করতে পারবেন । এবার আসি বর্তমানে আমাদের দেশে এবং বাইরের দেশে অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং-এর চাহিদা কেমন ?  

আমাদের দেশে গুগল অ্যাডসেন্স নিয়ে বেশি আলোচনা হলেও বাইরের দেশে অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং-ই প্রধান আয়ের উৎস । বাইরের দেশের বেশিরভাগ ফ্রিল্যান্সার অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং নিয়ে কাজ করেন কেননা, এতে নিরাপদ আয়ের পাশাপাশি ইনকাম স্হায়ী হয় এবং একই সাথে নিজের দক্ষতা বৃদ্ধি পায় । শুধু যে নিজের দক্ষতা বৃদ্ধি পায় তাই নয় এতে করে নিজের একটা ভালো পোর্ট-ফোলিও তৈরী হয় আর আমরা প্রত্যেকেই জানি ভালো মানের চাকরির জন্য ভালো পোর্ট-ফোলিও কতটা গুরুত্বপূর্ণ ।   

আর এই জন্যই  বাইরের দেশে অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং এত জনপ্রিয় কারণ এতে আয়ের পাশাপাশি একটা ভালো পোর্ট-ফোলিও তৈরী হয় । তবে বর্তমানে আমাদের দেশেও অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং ধীরে ধীরে জনপ্রিয় পাচ্ছে ।  অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং  এর আরেকটি সুবিধা হলো যে রিভিউ বানাতে গিয়ে অনেক অজানা জিনিষ জানা হয়, অনেক নতুন কিছু শেখা যায় যা আমাদের দক্ষতা বাড়াতে সহায়তা করে ।   

অপর দিকে গুগল অ্যাডসেন্স বাইরের দেশের তুলনায়  আমাদের দেশে খুবই প্রচলিত ইনকাম সোর্স ।গুগল অ্যাডসেন্সও আয় গুলো স্হায়ী হয় এবং অনেক ক্ষেত্রে তা অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং আয়ের চেয়ে বেশিও হতে পারে কিন্তু অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং এর ফলে যেরকম দক্ষতা বৃদ্ধি এবং পোর্ট-ফোলিও তৈরী হয় গুগল অ্যাডসেন্স এর ক্ষেত্রে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে তা হয় না । প্রশ্ন আসতে পারে কেন হয় না ? কারণ, 

আমরা গুগল অ্যাডসেন্স কে কাজে লাগিয়ে দু’ভাবে আয় করে থাকি । এক. ব্লগিং দুই. ইউটিউবিং । তো আমরা যখন ব্লগিং বা ইউটিউবিং করি তখন কী করি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে েবেশি ভিউ হবে এ জন্য না রিসার্স করেই কন্টেন্ট দিয়ে দেই । ইউটিউবিং করার সময় লো কোয়ালিটির ভিডিও দেই । অনেক সময় ব্লগ কন্টেন্ট গুলো হয় ফেইক । তারপরও কী হয় আয় কিন্তু ঠিকই হয় ।  কিন্তু আপনি যদি লো কোয়ালিটির ভিডিও বা ব্লগ কন্টেন্ট দিয়ে অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং করতে চান পারবেন কিন্তু আপনি আয় করতে পারবেন না যেহেতু আপনার কন্টেন্ট বিশ্বাসযোগ্য নয় ।

তাই শুধু মাত্র বাইরের দেশের অ্যাফেলিয়েট মার্কেটাররা বলতেছে বা করতেছে  এই জন্য নয় বরং আমাদের কাছে প্রমাণিত যে অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং করে শুধু আয় নয় দক্ষতা বৃদ্ধি এবং ভালো পোর্ট-ফোলিও তৈরী করা যায় যা আমাদের প্রত্যেকের দরকার । 

Topics: affliate marketing earnings google adsense freelancer work

অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং নাকি গুগল অ্যাডসেন্স ?

Login to comment login

Latest Jobs